ফেসবুক থেকে আপনার গোপন তথ্য ফাঁস হয়েছে? জেনে নিন সহজেই!

প্রযুক্তি বিশ্ব তো বটেই, সারা দুনিয়ায় আলোচনা-সমালোচনা হচ্ছে ফেসবুকে তথ্যের নিরাপত্তা নিয়ে। ব্রিটেনের একটি রাজনৈতিক পরামর্শদাতা প্রতিষ্ঠান কেমব্রিজ অ্যানালাইটিকা, যেটি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে নির্বাচনের সময় ফেসবুকে প্রচারণা চালাতে সহায়তা করেছিল, সেই ফার্মের বিরুদ্ধে ফেসবুক তথ্যের অপব্যবহারের অভিযোগ এসেছে।

ফেসবুকের দুর্বল নিরাপত্তা ব্যবস্থার সুযোগ নিয়ে সাইটটির ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত গোপনীয় তথ্য সংগ্রহ করে ক্যামব্রিজ অ্যানালাইটিকা মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রাক্বালে দেশটির জনগণকে প্রভাবিত করেছে যা নির্বাচনের ফলাফলে ভূমিকা রেখেছে।

প্রযুক্তি বিশ্ব তো বটেই, সারা দুনিয়ায় আলোচনা-সমালোচনা হচ্ছে ফেসবুকে তথ্যের নিরাপত্তা নিয়ে। ব্রিটেনের একটি রাজনৈতিক পরামর্শদাতা প্রতিষ্ঠান কেমব্রিজ অ্যানালাইটিকা, যেটি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে নির্বাচনের সময় ফেসবুকে প্রচারণা চালাতে সহায়তা করেছিল, সেই ফার্মের বিরুদ্ধে ফেসবুক তথ্যের অপব্যবহারের অভিযোগ এসেছে।

ফেসবুকের দুর্বল নিরাপত্তা ব্যবস্থার সুযোগ নিয়ে সাইটটির ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত গোপনীয় তথ্য সংগ্রহ করে ক্যামব্রিজ অ্যানালাইটিকা মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রাক্বালে দেশটির জনগণকে প্রভাবিত করেছে যা নির্বাচনের ফলাফলে ভূমিকা রেখেছে।

কেমব্রিজ এনালাইটিকার ঐ ঘটনা প্রকাশ পাওয়ার পর বিশ্বজুড়ে ফেসবুকের দিকে আঙুল তোলে সবাই। ফেসবুকের শেয়ারমূল্যও ব্যাপক হারে কমে যায়। এক পর্যায়ে ফেসবুক সিইও মার্ক জাকারবার্গ নিজের দুর্বলতা/ব্যর্থতা/দায়িত্ব স্বীকার করেন।

আর এখন ফেসবুক নতুন একটি উদ্যোগ হাতে নিয়েছে যার মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা জানতে পারবেন যে তাদের গোপন ব্যক্তিগত তথ্য ফেসবুক থেকে অন্য কোনো পক্ষের কাছে বেহাত হয়েছে কি না।

৯ এপ্রিল ২০১৮, সোমবার থেকে ফেসবুকের সকল ব্যবহারকারী নিজ নিজ ফেসবুক হোমপেজে (নিউজফিডে) নতুন একটি লিংক পাবেন যেখানে জানা যাবে কার কোন তথ্য ফেসবুক থেকে ফাঁস হয়েছে। ফেসবুকের মোট ২২০ কোটি ব্যবহারকারীর সকলেই তাদের ফেসবুক ফিডে একটি করে নোটিশ দেখতে পাবেন যেখানে প্রথমেই লেখা আসবে ‘প্রটেক্টিং ইওর ইনফরমেশন’। সেখানে প্রাথমিক কিছু কথাবার্তার পর একটি লিংক/বাটন থাকবে যেখানে ক্লিক করে অন্য একটি পেজে যেতে হবে। সেখানে আপনি দেখতে পারবেন আপনি কোন কোন অ্যাপ ফেসবুকের মাধ্যমে ব্যবহার করেন এবং সেসব অ্যাপের সাথে আপনার কোন কোন তথ্য শেয়ার করা হয়েছে। এরপর আপনি চাইলে থার্ড-পার্টি অ্যাপ ফেসবুক থেকে মুছে ফেলতে পারবেন।

ফেসবুকের দাবি অনুযায়ী, কেমব্রিজ এনালাইটিকার কারণে মোট ৮.৭ কোটি ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য বেহাত হয়েছে, যার মধ্যে ৭ কোটিই আমেরিকান। তবে ফেসবুক থেকে অন্যান্য অ্যাপের মাধ্যমেও যেসব ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত গোপন তথ্য ফাঁস হয়ে যাওয়ার ঝুঁকি আছে তা কমানোর জন্য প্রত্যেকেরই উচিত ফেসবুক ফিডে আসা ঐ নোটিশ চেক করে নিশ্চিত হওয়া। ৯ এপ্রিল থেকে সকল ফেসবুক ব্যবহারকারীর ফেসবুক হোমপেজেই নোটিশটি আসবে। সুতরাং নজর রাখুন, আর সুরক্ষিত থাকার চেষ্টা করুন!

Related posts

Leave a Comment