প্রসাধনীর খোঁজে

বাজারগুলো ঘুরলে এখন পাওয়া যাচ্ছে ঈদের আমেজ। ঈদের কেনাকাটায় জামা, জুতা ও গয়নার পর অনেকেই ভিড় করছেন প্রসাধনীর দোকানে। উদ্দেশ্য, বাজারে আসা নতুন প্রসাধনীগুলো কেনা। ঈদে মেকআপে চলতি ধারা কেমন হবে, এই মেকআপ-সামগ্রীগুলো থেকেও ধারণা পাওয়া যাচ্ছে।

রেড বিউটি পারলারের স্বত্বাধিকারী আফরোজা পারভীন জানান, এবারের ঈদে গাঢ় রংটি থাকবে কম। মেয়েরা হালকা রঙের মধ্যে বাঙ্গি, মিষ্টি গোলাপি, নুড রং দিয়ে চোখ ও ঠোঁট সাজাবে। যারা সব সময় কাজল ও আইলাইনার ব্যবহার করে, তারা ছাড়া বাকিরা আইশ্যাডো ও মাসকারা দিয়ে চোখ কনট্যুরিং ও ভলিউম করছে। বেজ মেকআপেও খুব ভারী কিছু থাকবে না। লিকুইড ও ক্রিম বেজ ফাউন্ডেশনে মেকআপ অনেক ন্যাচারাল লাগবে। সঙ্গে হালকা রঙের ব্লাশনে এবার মেয়েদের ঈদের সাজে আসবে পরিপূর্ণতা।

রাজধানীর বিভিন্ন প্রসাধনীর দোকানগুলো ঘুরে দেখা গেল, এখন থেকেই তরুণীদের ঈদ প্রসাধনী কেনা শুরু হয়ে গেছে। প্রসাধনী পাওয়া যায়, এমন বিভিন্ন দোকান ঘুরে দেখা গেল, বাজারে চলে এসেছে নতুন প্রসাধনী। মিরপুর রোডের প্রিয় প্রসাধনী দোকানের ম্যানেজার সাইফুল ইসলাম জানান, ঈদ উপলক্ষে প্রতিবারের মতো এবারও বিভিন্ন নতুন ব্র্যান্ড আনা হয়েছে। টমফোর্ড, ক্যাটবন্ড, টু ফেইস, ক্লিনিক, নার্স, ম্যাক ছাড়াও ল্যাকমে, লরিয়েল, মেবেলিনের পণ্য রয়েছে।

লিপস্টিকের মধ্যে ম্যাট লিপস্টিক খুব চলছে। রেভলন, ম্যাক, ক্রিশ্চিয়ান ডিওর, ল্যানকম, ক্লিনিক, বুটস নম্বর সেভেন, লরিয়াল, জ্যাকলিন, মেবেলিন, ডিওরসহ বিভিন্ন ধরনের লিপস্টিক পাওয়া যাচ্ছে বলে জানান বিক্রেতারা। নুড, পিচ, গোলাপি রংগুলো পছন্দের মধ্যে প্রথম। এ ছাড়া ম্যাজেন্টা, লাল, মেরুন রঙের লিপস্টিক এবার বেশ জনপ্রিয়। বেজ মেকআপের মধ্যে প্যানকেক না কিনে ম্যাট, লিকুইড ও ক্রিম ফাউন্ডেশন কিনছেন ক্রেতারা। বিডি বাজেটের বিক্রয়কর্মী জানান, এখানে সব ধরনের মেকআপ পণ্য পাওয়া যাবে। তবে আমরা ইংল্যান্ডের বিভিন্ন ব্র্যান্ডের পণ্য বিক্রি করি।

ঈদ উপলক্ষে কেট লন্ডন, লটি লন্ডনের সব ধরনের প্রোডাক্ট পাওয়া যাবে। এ ছাড়া মুখের গর্তের দাগ ঢাকতে লটি লন্ডনের ইনস্টা ফিলটার এসেছে। এটি ফাউন্ডেশন ব্যবহারের আগে দেওয়া হয়। এ ছাড়া লিকুইড ও ম্যাট ফাউন্ডেশন, প্রাইমার, লিকুইড শাইনার ও মেকআপ সেটিং স্প্রে আনা হয়েছে।

আলমাসের বিক্রয়কর্মী জানান, ঈদ উপলক্ষে মেবেলিনের আইলাইনার, মাসকারা কাজল, লিপস্টিক এসেছে। তা ছাড়া লরিয়ালের ফাউন্ডেশন, গোল্ডেন রোজের ফেইস পাউডার, জ্যাকলিন ও ল্যাকমের বেইজ, হুদা বিউটির লিপস্টিক খুব চলছে।

এ ছাড়া পাউডার আইশ্যাডোর পাশাপাশি বাজারের এসেছে থাইল্যান্ডের পেনসিল আইশ্যাডো। দেখতে পেনসিলের মতো। এবার হালকা রঙের আইশ্যাডো বক্সের চাহিদা বেশি। তার সঙ্গে এবার বাজারে গ্লিটার আইলাইনারও জনপ্রিয়তা পাবে। বাংলা শপার্সের বিক্রয়কর্মী বলেন, ‘বিভিন্ন ব্র্যান্ডের লিকুইড ম্যাট লিপস্টিকগুলোর চাহিদা সবচেয়ে বেশি। কাজল ও মাসকারার চাহিদাও আছে, তবে কাজলের মধ্যে লরিয়েল, মেবেলিন, ল্যাকমে, আইকোনিকের রঙিন নীল, সবুজ, আকাশি, বাদামি, ছাইরঙা ইত্যাদি রংগুলো বেশি কিনছে। নেইল পলিশের মধ্যে নুড, গোলাপি, বাঙ্গি রঙের ম্যাট ফিনিশিং চলছে।’

লিপস্টিক ২০০ টাকা থেকে ৬ হাজার ৫০০, মাসকারা ৪৫০ থেকে ৩ হাজার ৮০০, কাজল ১০০ টাকা থেকে ২ হাজার ৮০০ টাকা, বেজ মেকআপ পণ্য ৪৫০ টাকা থেকে ৫ হাজার ৫০০ টাকা, ফেস পাউডার ৪৫০ টাকা থেকে ৭ হাজার ৫০০ টাকা, আইশ্যাডো ৩৫০ টাকা থেকে ৮ হাজার ৫০০ টাকা, নেইলপলিশ ১৫০ টাকা থেকে ২ হাজার টাকা।

Related posts

Leave a Comment